Home / জাতীয় / আজ ছিল আমার জন্মদিন-এম মোস্তাকিম বিল্লাহ

আজ ছিল আমার জন্মদিন-এম মোস্তাকিম বিল্লাহ

14741071_1186108034781756_1037113918_n14705645_651115575057523_5405605725897791494_n
আজ ১৭অক্টোবর ২০১৬ইং, আজ ছিল আমার জন্মদিন,জীবনের প্রয়োজনেই হেটে চলছি মৃত্যুর পথে। তবুও রয়েছে কর্ম-ধর্ম,শিল্প-সাহিত্য,আশা-আকাঙ্ক্ষা,জীবন-আদর্শ ও মতাদর্শের সাথে নিগূঢ়তম সম্পর্ক,জীবনের এ পথচলতে আমরা ভালো যা কিছু গ্রহণ করে থাকি তা শুধু আমাদের জন্যই করে থাকি,প্রতিদিন দীর্ঘশ্বাসের মত অগণিত মানুষের সাথে আমরা সম্পর্ক গড়ে থাকি।সে সম্পর্কের বিচ্ছেদও ঘটিয়ে থাকি,নবরূপে নব সম্পর্কে এগুতে থাকি জীবনের প্রয়োজনে,আমরা যে পথ’টি অতিক্রম করতে চাইনা সে হলো মৃত্যুর পথ।
 
জন্মদিন আসলেই মৃত্যু হৃদয়ের মিশে যায়,মনে হতে থাকে কখন যে ছেড়ে যায় শেষ নিঃশ্বাস, জন্মদিনের আনন্দ যেন আর আনন্দ হয়ে থাকে না। তবুও জীবন চলতে জীবনের পথে চলতে হয়।
এক বর্ষার শেষ ভাগে আমার জন্ম হয়েছিলো, চারপাশ ছিলো নীরব নিস্তব্ধ শুনশান সকালে, রবির আলো আমায় তখনো ছুঁতে পারেনি আধো আলো,আধো ছায়ায় ভূমিষ্ঠ হয়েছিলাম মায়ের গর্ভ থেকে,পেয়েছিলাম এক শান্তিময় সকাল ।পরিবারের দ্বিতীয় সন্তান হিসাবে চারপাশ আনন্দের হলেও শান্তিছিলো মা-বাবার মনে। কেননা মৃত্যুযোগ ছিল তাদের অভিশাপ, তাদের ভয় ছিলো মৃত্যু যেন আমায় কখন কেড়ে নেয়। আমার পূর্বে তাদের এক কন্যা ও এক ছেলে সন্তান বিসর্জন দিতে হয় মৃত্যুতে। যে ভয় তাদের অবসান দেয়নি আমার বেড়ে উঠার সাথেও। আজ সেই আমি মৃত্যু এড়িয়ে মৃত্যুর সম্মুখে জীবনের পথ পেরিয়ে পথ চলছি জীবনের পথে,পৃথিবীর পথে।
 
আমার জন্য আমি কিছু রেখে যেতে চাই না,পৃথিবী আমায় কিছু দিতে পারবে না জেনেও আমি থেমে নেই,সৃষ্টির মাঝে মানুষের মাঝে নিত্য করে চলছি বিচারণ।
 
আমি এ ঘুণধরা পৃথিবীর কাছে আমার কিছু চাওয়ার নেই,হ্যা তবে আমি চাই সৃষ্টিকর্তার কাছে,এ বিশ্ব প্রতিপালকের কাছে,অন্তত মৃত্যুরপর যেন তিনি আমাকে তার করে নেন,তার কৃপা ছাড়া এ জগতে আমি কিছুই চাই না ।
অগণিত মানুষ আজ জন্ম-মৃত্যুর মিছিলে,সে মিছিল আমারও বটে,আমি জন্মদিন কখনোই আমার মত করে উদযাপন করিনি,উপভোগ করতে চাইনি আমার জন্মদিন বলে কিছু আছে,তবে অস্বীকার ও করছি না আমার জন্মদিন নেই,আমি প্রতিটিক্ষণ,প্রতিটি মুহূর্ত জন্মের মত নিজেকে গড়ি,মৃত্যুর মত নিজেকে মনে রাখি।
 
আমার মৃত্যুর পরবর্তী সময়ে কেউ আমার জন্মদিনের আনন্দ করুক,কেই মৃত্যুদিনের শোক পালন করুক কখনোই চাইবো না। তবে হ্যা সে জন্ম ও মৃত্যুদিনের অর্থ যদি কোন অসহায়, হতদরিদ্র, সুবিধা বঞ্চিত মানুষের কল্যানে ব্যয় করা হয় তবে আমার আপত্তি নেই ।
14696810_1749820011933295_413828245_n14572844_1749932731922023_8234615809966954249_n-1
 
তবুও অগণিত মানুষের ভালোবাসায়,অনুপ্রেরণায় আমার অবর্তমানে গত ১৩ অক্টোবর রাজধানীর বিশ্ব সাহিত্য কেন্দ্রে পালিত হলো আমার জন্মোৎসব ও কবি টিপু রহমানের জন্মোৎসব সহ বাংলাদেশ কবি পরিষদের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষ্যে এক আলোচনা,আবৃত্তি মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ।
 
অনুষ্ঠানের শুরুতে উপস্থিত কবিগণ সদ্য প্রয়াত কবি সৈয়দ হকের স্মরণে এক মিনিট নিরবতা পালন করেন ও এ অনুষ্ঠানটি তাকে নিবেদন করেন উপস্থিত বাংলাদেশ কবি পরিষদের কর্মকর্তাগন ।তুলে ধরা হয় বাংলাদেশ কবি পরিষদের জীবন বৃত্তান্ত ।
 
একি সাথে তুলে ধরা হয় বাকপ স্থায়ী কমিটির সভাপতি এম মোস্তাকিম বিল্লাহ,কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি কবি টিপু রহমান ও কবি মাসুদ আহমেদ এর সাহিত্য কর্ম ও জীবন বৃত্তান্ত । এছাড়া ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে ।
 
একে একে সম্মানিত অতিথিবৃন্দ কবিদের জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানান তাদের বক্তব্যের মাঝে,গান,আবৃত্তি স্বরচিত কবিতা পাঠে অনুষ্ঠানটি মুখরিত হয় । বাংলাদেশ কবি পরিষদের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে অতিথিদের বক্তব্যের মাঝে সাহিত্য ও মানবতায় বাংলাদেশ কবি পরিষদ প্রশংসনীয় দাবিদার বলে উল্লেখ্য করেন আমন্ত্রিত অতিথিবৃন্দ ।
 
অনুষ্ঠানের আলোচনার মধ্যে উঠে আসে বর্তমান সময়ের দাবী কবি ভবন প্রসঙ্গে । সরকার প্রধানের কাছে কবি,লেখক,সাহিত্যক ও সাহিত্য সংগঠকদের নিজস্ব ভবন বাস্তবায়ন এর জন্য স্বাক্ষর ও মন্তব্য সহকারে গ্রহণ করেন সংগঠনটির কর্মকর্তাগণ ।
14570416_1201322053276577_2130147625839439646_n
 
উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের পেসিডিয়াম সদস্য,বিশিষ্ট গবেষক ও কবি ড.নূহ-উল-আলম লেলিন ।
.
বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন,কবি কাজী রোজী ( এম পি ) , এইচ এম সিরাজ ।
 
অনুষ্ঠানটি উদ্বোধন করেন ব্যরিষ্টার এম,আমিরুল ইসলাম ।
14642568_1865340687062363_715088507_n
.এছাড়া ও আমন্ত্রিত অতিথি ছিলেন
সৈয়াদ মাজাহার পারভেজ ,এবিএম সোহেল রশীদ,সুবর্ণ কাজী, মাঈনুদ্দিন কাজল,ফাইজুল হক শেখর,,প্রফেসর আনোয়ার হোসেন মিয়া ,আলমগির হোসেন মিল্টন ,মেহেদী হাসান আকাশ, জাহাঙ্গীর আলম ইকবাল, শিরীন সুলতানা, লায়লা নওশিন,গোলাম কবির,কাকলী আফরোজ, সাঈদা নাঈম ,রওশন আরা কবির,সাবরীনা আহমেদ চায়না,শেখ আখতার হোসাইন,আনোয়ারা আখতার লাকী, নাঈম আহমেদ,শিলু জামান , জোছনা হক ,আনোয়ার মজিদ,সামিয়া নাজ,মোশারফ হোসেন,সাবিনা লাকী, শামিমা রেজা ,ইলিয়াছুর রহমান রুশ্নি ,ডেইজি ইসলাম,কবি শায়লা কবির,জাহাঙ্গীর আলম ইকবাল, মোঃ ময়েজউদ্দিন,মাইদুল ইসলাম মুক্তা,শামস রুবেল হোসেন,,শাহানা ঝরনা,শাহানা রশীদ শানু,, ফাতেমা খাতুন রুনা,মুফিদা আকবর,মালেক মাহমুদ, জাহিদুল ইসলাম রুমি,জাফর পাঠান,নুরুল শিপার খান, মোঃ রেজাল করিম ।
.
আবৃত্তিকার হিসাবে উপস্থিত ছিলেন,বদরুল আহসান খান,,জাকির হোসেন উপকূল, নাহিদা আশরাফি,মেহেদী হাসান আকাশ,আলমগীর ইসলাম শান্ত, ঋতুরাজ ফিরোজ, ইশরাত নাদিয়া,শূণ্য আকাশ রীনা পারভীন , প্রমোখ
এছাড়া আরো অন্যন্য প্রায় ২০০ শতাধিক কবি,লেখক,সাহিত্যিক,ছড়াকার গায়ক,গায়িকা অতিথি অনুষ্ঠানটিতে অংশগ্রহন করেন।
6b72634a-d8f7-467f-80f2-7f945c87be48
.অনুষ্ঠানটি সুস্থ ও সুন্দর ভাবে পরিচালনা করেন কবি ও অভিনেতা সোহেল রশিদ ।
চমৎকার স্বার্থক-সফল- অর্থবহ একটি অনুষ্ঠান ছিলো এটি।
 
.
এছাড়া ও উপস্থিত ছিলেন দেশের শীর্ষস্থানীয় কবি,লেখক ও সাহিত্যিকগণ । অবশেষে সভাপ্রধানের বক্তব্যর মাধ্যমে অনুষ্ঠানটি সুন্দর ও সাফল্যের সাথে সমাপ্ত ঘোষণা করা হয় ।
 
আমি অনুষ্ঠানের অংশ গ্রহণকারী সকল শ্রদ্ধাবান ব্যক্ততির নিকট কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি ,কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি বিশিষ্ট নাট্যনির্মাতা অনুষ্ঠান উদযাপন কমিটির আহ্ববায়ক মোহাম্মদ নোমান ,সদস্য সচিব পথিক রানা,মোঃশাহিন আলম সহ উদযাপন কমিটির সকলের নিকট ,কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি সকল প্রিন্ট মিডিয়া,ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিক ভাইয়েদের প্রতি । বিশেষ কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি সে সকল কবি সাহিত্যিক ও আমার বন্ধুদের প্রতি যারা আমার জন্মদিন নিয়ে কবিতা লিখেছেন,আবৃত্তি করেছেন , ফেসবুক টাইমলাইনে, ইনবক্সে ,টুইটর,ইমেইল ও ওয়েব,ব্লগ এ শুভেচ্ছা বার্তা পাঠিয়েছেন ।
14642244_651120638390350_8809162513669299061_n
 
সেই ভালো ছিলো,যদি তুমি না আসতে
তোমার আগমনে যেমনি আমি উৎকণ্ঠিত হই
তেমনি পাতা ঝরা বেদনার মত কাঁদতে থাকি বিদায়ে
জন্মদিন অতিক্রম করাই হয়তো,মৃত্যুকে স্মরণ করা ।
( এম মোস্তাকিম বিল্লাহ ১৭/১০/২০১৬ইং )

About Khorshed Alam

আরও দেখুন

16807761_108883132969378_7659074573731222117_n

আঞ্জুমন আরা’র দু’টি ছড়া

আঞ্জুমন আরা’র দু’টি ছড়া খুকুমনির বই মেলা।   বই মেলাতে যাবে খুকু বায়না ধরেছে, গোমরা …

4 comments

  1. সেই ভালো ছিলো,যদি তুমি না আসতে।
    তোমার আগমনে যেমনি আমি উৎকণ্ঠিত হই
    তেমনি পাতা ঝরা বেদনার মত কাঁদতে থাকি বিদায়ে
    জন্মদিন অতিক্রম করাই হয়তো,মৃত্যুকে স্মরণ করা ।

  2. শুভ জন্মদিন কবি। যুগ যুগ ধরে বেঁচে থাকুন মানুষের হৃদয়ে।

  3. ইলিয়াছুর রহমান রুশ্নি।।

    ।।ভালবাসার খরা।।
    -ইলিয়াছুর রহমান রুশ্নি।
    (১৮-১০-২০১৬)
    ‘‘‘‘‘‘‘‘‘‘‘‘‘‘‘‘‘‘‘‘‘‘‘‘‘‘‘‘‘‘‘‘‘‘‘‘‘‘‘‘‘‘
    আমি জানতে চেয়েছি, কষ্টের রঙ কি?
    ভাললাগার,ভালোবাসার কোন রঙ আছে কিনা,
    ভাবখানা এমন, এই প্রথম বুঝি এমন প্রশ্নের মুখোমুখি।
    যেন বাল্যশিক্ষা হাতে কোন অবুঝ শিশু,
    যার কাছে জানাটা নিছকই খেলা।

    অতএব,কৌতুহলী এই প্রশ্নের কোন উত্তর পেলাম না,
    যেন পরীক্ষার হলে সাদা খাতা জমা দেয়া অর্বাচীন।
    তুমিই তো আমাকে বলেছিলে,কষ্টের রঙ নীল,
    নীলাভ আকাশ, সাগরে নীল জলের খেলা,
    সর্প বিষে,অনেক বেদনায় নীল হওয়ার যন্ত্রনা।

    আর ভালোবাসা-শুধুই রঙ বদলানো, রোদ বৃষ্টির লুকোচুরি,
    হৃদয়ের বেসাতি,বেশ্যাবৃত্তির ছলাকলা,
    ভালোবাসার খরায় ঘুচে যায় চিত্তের বৈভব,
    বিত্ত বৈভবের কাছে অবিরাম নতজানু হওয়া।
    মরিচীকার মতই দিগন্তে একাকার আকাশ।

    হৃদয়ের উদ্যানে ফুটিয়ে ভক্তি জবা ফুল,
    অলিরা খুঁজে পাক মধু বকুলে,তৃপ্তিতে হয়ে আকুল।
    ভালবাসায় সিক্ত হয়ে পথ চলা, প্রনয়ী চুম্বন এঁকে,
    অনুরক্তে বিবাগী বসন্ত হউক ফুলেল বর্নিল।
    তিরোহিত হউক কষ্টের অবাধ বিস্তার।

    কাঁটায় জড়ানো গোলাপ নিতে রক্তাক্ত হওয়া
    কষ্টরা যাক নির্বাসনে, স্বস্তি পাক অনুরাগী,
    বিত্তের নয় চিত্তের বৈভবেরই হউক জয়।
    ফুটুক শতদল মননে, প্রষ্ফুটিত কোন সকালে,
    ঘুচিয়ে ভালোবাসার খরা।

Leave a Reply